তসলিমা নাসরিন

তসলিমা নাসরিনের (১৯৬২-) ময়মনসিংহে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৯৩ সাল অবধি চিকিৎসক হিসেবে সরকারি হাসপাতালে চাকরি করেছেন। চাকরি করলে লেখালেখি ছাড়তে হবে, সরকারি এই নির্দেশ পেয়ে তিনি সরকারি চাকরিতে ইস্তফা দেন। ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়ার অভিযোগে তাঁকে ১৯৯৪ সালে দেশ থেকে বিতাড়িত হতে হয়। ‘শিড়কে বিপুল ক্ষুধা’, ‘নির্বাসিত বাহিরে অন্তরে’, ‘অতলে অন্তরীণ’, ‘অপরপক্ষ’, ‘শোধ’, ‘নারীর কোন দেশ নেই’, ‘মিনু’ তাঁর কয়েকটি পাঠক সমাদৃত বই। ‘লজ্জা’, ‘উতাল হাওয়া’, সেইসব অন্ধকার’সহ তাঁর মোট পাঁচটি বই নিষিদ্ধ করে সরকার। ইউরোপিয়ান পার্লামেন্ট থেকে মুক্তচিন্তার জন্য শাখারত পুরস্কার, ধর্মীয় শান্তি প্রচারের জন্য ইউনেস্কো পুরস্কার, ফরাসি সরকারের মানবাধিকার পুরস্কার, ধর্মীয় সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য ফ্রান্সের এডিট দ্য নান্ত পুরস্কারসহ তিনি অসংখ্য পুরস্কার পেয়েছেন।

তসলিমা নাসরিন

তসলিমা নাসরিনের (১৯৬২-) ময়মনসিংহে জন্মগ্রহণ করেন।
১৯৯৩ সাল অবধি চিকিৎসক হিসেবে সরকারি হাসপাতালে চাকরি করেছেন। চাকরি করলে লেখালেখি ছাড়তে হবে, সরকারি এই নির্দেশ পেয়ে তিনি সরকারি চাকরিতে ইস্তফা দেন। ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়ার অভিযোগে তাঁকে ১৯৯৪ সালে দেশ থেকে বিতাড়িত হতে হয়।
‘শিড়কে বিপুল ক্ষুধা’, ‘নির্বাসিত বাহিরে অন্তরে’, ‘অতলে অন্তরীণ’, ‘অপরপক্ষ’, ‘শোধ’, ‘নারীর কোন দেশ নেই’, ‘মিনু’ তাঁর কয়েকটি পাঠক সমাদৃত বই।
‘লজ্জা’, ‘উতাল হাওয়া’, সেইসব অন্ধকার’সহ তাঁর মোট পাঁচটি বই নিষিদ্ধ করে সরকার।
ইউরোপিয়ান পার্লামেন্ট থেকে মুক্তচিন্তার জন্য শাখারত পুরস্কার, ধর্মীয় শান্তি প্রচারের জন্য ইউনেস্কো পুরস্কার, ফরাসি সরকারের মানবাধিকার পুরস্কার, ধর্মীয় সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য ফ্রান্সের এডিট দ্য নান্ত পুরস্কারসহ তিনি অসংখ্য পুরস্কার পেয়েছেন।

Showing all 9 Books