আহমদ শরীফ

আহমদ শরীফ (১৯২১-১৯৯৯) চট্টগ্রামের পটিয়ার সুচক্রদণ্ডী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা আব্দুল আজিজ চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুলের করণিক ছিলেন। পটিয়া হাইস্কুল থেকে মাধ্যমিক (১৯৩৮), চট্টগ্রাম কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক (১৯৪০) ও স্নাতক (১৯৪২), ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৪৪ সালে বাংলা সাহিত্যে স্নাতকোত্তর এবং ১৯৬৭ সালে ‘সৈয়দ সুলতান: তাঁর গ্রন্থাবলী ও তাঁর যুগ’ শীর্ষক অভিসন্দর্ভের জন্য পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৫৪ সালের শেষের দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে যোগ দিয়ে টানা ৩৪ বছর অধ্যাপনা শেষে অবসরে যান। পুথিবিশারদ হিসাবে তিনি বেশ সমাদৃত। ‘স্বদেশ অন্বেষা’, ‘মধ্যযুগের সাহিত্য সমাজ ও সংস্কৃতির রূপ’, ‘বাংলা সুফি সাহিত্য’, ‘বিচিত চিন্তা’, ‘বাঙালি ও বাঙলা সাহিত্য (দুই খণ্ড)’ তাঁর কয়েকটি সুপরিচিত বই। তিনি মধ্যযুগের ৪০টিরও বেশি পুথি সম্পাদনা করেছেন। ‘লাইলী মজনু’, ‘সিকান্দরনামা’, ‘মুহম্মদ খানের সত্য-কলি-বিবাদ সংবাদ’, ‘মুসলিম কবির পদসাহিত্য’ তাঁর কয়েকটি উল্লেখযোগ্য সম্পাদিত গ্রন্থ।

আহমদ শরীফ

আহমদ শরীফ (১৯২১-১৯৯৯) চট্টগ্রামের পটিয়ার সুচক্রদণ্ডী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা আব্দুল আজিজ চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুলের করণিক ছিলেন।
পটিয়া হাইস্কুল থেকে মাধ্যমিক (১৯৩৮), চট্টগ্রাম কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক (১৯৪০) ও স্নাতক (১৯৪২), ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৪৪ সালে বাংলা সাহিত্যে স্নাতকোত্তর এবং ১৯৬৭ সালে ‘সৈয়দ সুলতান: তাঁর গ্রন্থাবলী ও তাঁর যুগ’ শীর্ষক অভিসন্দর্ভের জন্য পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন।
১৯৫৪ সালের শেষের দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে যোগ দিয়ে টানা ৩৪ বছর অধ্যাপনা শেষে অবসরে যান। পুথিবিশারদ হিসাবে তিনি বেশ সমাদৃত।
‘স্বদেশ অন্বেষা’, ‘মধ্যযুগের সাহিত্য সমাজ ও সংস্কৃতির রূপ’, ‘বাংলা সুফি সাহিত্য’, ‘বিচিত চিন্তা’, ‘বাঙালি ও বাঙলা সাহিত্য (দুই খণ্ড)’ তাঁর কয়েকটি সুপরিচিত বই।
তিনি মধ্যযুগের ৪০টিরও বেশি পুথি সম্পাদনা করেছেন। ‘লাইলী মজনু’, ‘সিকান্দরনামা’, ‘মুহম্মদ খানের সত্য-কলি-বিবাদ সংবাদ’, ‘মুসলিম কবির পদসাহিত্য’ তাঁর কয়েকটি উল্লেখযোগ্য সম্পাদিত গ্রন্থ।

Showing 1–20 of 55 Books