বঙ্গবন্ধুর বাড়ি

৳ 250.00

ধানমন্ডির ৩২ নম্বর বাড়ি। যে বাড়িটি বাঙালি জাতির ইতিহাসের অন্যতম অংশ হয়ে আছে। এখানে বসে। বঙ্গবন্ধু আন্দোলন-সংগ্রামের অনেক গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন। এ বাড়িতে তিনি সপরিবারে থাকতেন। মায়া-মমতার অকৃত্রিম বন্ধনে বাড়িটি অন্য দশটি বাঙালি পরিবারের মতো হলেও এ বাড়ির বৈশিষ্ট্য সম্পূর্ণ আলাদা। স্বতন্ত্র পরিচয় নিয়ে বাড়িটি সবার মাঝে আশা-আকাঙ্ক্ষার আলো জ্বালিয়ে দিয়েছে। বাঙালি জাতির আত্মপরিচয় স্বাধিকার-আন্দোলনে বাড়িটি মূর্ত প্রতীক হয়ে ওঠে। এ বাড়ির প্রতিটি ইটও যেন আন্দোলন-সংগ্রামের অংশ। বঙ্গবন্ধু বাঙালি বাঙালি’ বলতে বলতে একসময় বাঙালি জাতি ঐক্যবদ্ধ হয়ে যায় । এ বাড়িতেই বাঙালিরা তাদের ঠিকানা খুঁজে পায়। ২৬ মার্চ ভোররাতে বঙ্গবন্ধু এ বাড়ি থেকে স্বাধীনতার ঘোষণা দেন। পাক হানাদারবাহিনী তাঁকে এ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে। বঙ্গবন্ধু পাকিস্তানের কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে স্বদেশে প্রত্যাবর্তন করেন। দেশে ফিরে এসে তিনি এ বাড়িতেই ওঠেন। তখন বাড়িটি হয়ে ওঠে বাংলার সবচেয়ে বড় তীর্থস্থান। প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরও তিনি এ বাড়িতে থাকতেন। এমনকি রাষ্ট্রপতি হওয়ার পরও। ইতিহাসের সবচেয়ে জঘন্যতম নৃশংস হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয় এ বাড়িটিতে। বঙ্গবন্ধু সপরিবারে শাহাদতবরণ করেন।