রাজনীতি, দুর্নীতি ও নির্বাচন

View cart “ইদানীং বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে” has been added to your cart.

৳ 350.00

রাজনীতি হল একটি প্রক্রিয়া-আলাপ- আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতায়  পৌঁছার প্রক্রিয়া। রাজনৈতিক প্রক্রিয়া কার্যকারিতা প্রদর্শন  করলে শান্তিপূর্ণভাবে সমস্যার সমাধান হয়। দ্বন্দ্ব-হানাহানি এড়ানো যায়। রাজনীতির উদ্দেশ্য মহান ও জনকল্যাণ। তাই সততা, নিষ্ঠা ও দায়বদ্ধতা এর অন্যতম বৈশিষ্ট্য হওয়া আবশ্যক।  কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত রাজনীতি আজ আমাদের দেশে জনকল্যাণের পরিবর্তে ব্যক্তি ও গোষ্ঠীর স্বার্থসিদ্ধির মাধ্যমে পরিণত হয়ে পড়েছে।  রাজনীতি আজ একটি লাভজনক ব্যবসায় পরিণত হয়েছে। বস্তুত রাজনৈতিক দলের পৃষ্ঠপোষকতা ও ছত্রচ্ছায়াই আমাদের দেশে দুর্নীতির বিস্তার ঘটছে। রাষ্ট্রীয় নজরদারিত্বের প্রতিষ্ঠানগুলোর ক্রমবর্ধমান অকার্যকারিতার ফলে ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে দুর্নীতি তথা অন্যায় করে পার পেয়ে যাওয়ার এক অপসংস্কৃতি আজ আমাদের দেশে গড়ে উঠেছে। আর এ অপসংস্কৃতির কারণেই দুর্নীতি আমাদের সমাজে বেসামাল পর্যায়ে পৌঁছেছে এবং যে কোনো মূল্যে ক্ষমতায়  যাওয়ার এক অশুভ প্রতিযোগিতা দেশে বিরাজ করছে। ক্ষমতায় যাওয়ার অশুভ প্রতিযোগিতার অংশ হিসেবে আমাদের রাজনীতিবিদরা কোনো অপকর্ম থেকেই যেন নিজেদের বিরত রাখেন না। তাঁরা নীতি-আদর্শ, এমনকি মৌলিক মানবিক মূ্ল্যবোধ বিসর্জন দিতেও কুণ্ঠাবোধ করেন না। তাঁরা ক্ষুদ্র স্বার্থে সংবিধানের মতো গুরুত্বপূর্ণ দলিল কাটা-ছেঁড়া করতেও ‍দ্বিধা করেন না। পাতানো ও প্রহসনমূলক নির্বাচন অনুষ্ঠানেও পিছপা হন না। আর ক্ষমতায় যাওয়ার এ সর্বাত্মক প্রতিযোগিতার ফলে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের সনাতন পন্থা তথা রাজনৈতিক প্রক্রিয়া আমাদের দেশে আজ ভেঙে পড়েছে। ফলে জাতি  হিসেবে আজ আমরা এক অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে ধাবিত হচ্ছি। আমরা জানি না এর পরিণাম কী হবে। তবে আমরা মনে করি যে, এ অবস্থা থেকে উত্তরণের অন্যতম পন্থা হলো আমাদের রাজনীতিকে কলুষমুক্ত করা এবং সংলাপের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সমঝোতায় পৌঁছা।